ওয়েবসাইট ভিজিটর পাওয়ার ১০ টি উপায়


 

ওয়েবসাইট ভিজিটর পাওয়ার ১০ টি উপায়

যেভাবে আপনি আপনার ওয়েবসাইটে ভিজিটর পাবেন সেগুলো নিয়ে আজকে ১০ টি প্রশ্নের উত্তর দিব যেখানে আপনার ওয়েবসাইট বা ভিজিটরের উত্তর সহজই পাবেন আজকে ওয়েবসাইট ভিজিটর বা প্রচার প্রসারের জন্য অনেকেই অনেক কিছুই করে কেউ ওয়েবসাইট খুলেই ফেসবুকে সকল কে মেসেন্জারে লিং দেয় আরে ভাই আপনি কি ফেসবুক কে মাসে মাসে টাকা দেন নাকি যে, ফেসবুক কোম্পানী আপনার সাইট টি নিয়ে সকলের কাছে পৌছে দিবে বা যেখানে সেখানে লিং শেয়ার করেন না আপনি ভাবতে পানে হঠাৎ প্রশ্ন? হ্যা ঠিকই বলছি আপনি আপনার ওয়েবসাইট টি ফেসবুকের মাধ্যমে এগিয়ে নিয়ে যেতে চাইলে তাদের টাকা দেওয়া লাগবেনা তারা যচায় সঠিক তথ্য আপনি আপনার ওয়েবসাইট টি তাদের কাছে ভেরিফাই করে নিন ফেসবুকে ডোমেইন ভেরিফাই করে নিন

. আপনি কিভাবে ওয়েবসাইট ভিজিটর আনবেন সেগুলো নিয়ে আলাপ করা হল

ওয়েবসাইট ভিজিটরের ক্ষেত্রে সোসাল মিডিয়া অনেক উপকার করে এছাড়া ফেসবুকে আপনার ডোমেইনটি ভেরিফাই করে নিলে আর কোনো জামেলা থাকবেনা

. যেভাবে ওয়েবসাইটে ভিজিটর আনবেন

উত্তর: আপনি আপনার ওয়েবসাইট টি যদ ব্লগারে হয় তাহলে অনেক বড় বড় মানে ১০০০ এর চেয়ে বেশি শব্দের মধ্যে ভালো কিওয়ার্ড লিখে সুন্দর করে আর্টিকেল অনুযায়ী থেকে টা ফটো দিন এবং এই লিং টি ভালো কোনো গ্রুপে শেয়ার করুন যেখানে ১০০ এর অধিক মানুষ পরবে তাহলে সেই লিংটি গুগলে ফাস্ট থাকলে আপনার সেই পোস্ট টি দিন দিন ভিজিটর বাড়তেই থাকবে

. ট্রাফিক ভিজিটর এর উপকারিতা কি?

উত্তরঃ আপনি যদি ট্রাফিক ভিজিটর আনেন তবে আপনার সাইটটি গুগলের মাধ্যমে এডস হিসেবে ছড়িয়ে দিতে হবে এজন্য বিভিন্ন কোম্পানি আছে যেগুলো অঞ্চল ভিত্তিক বুস্ট করে আপনার লিং ছড়িয়ে দেওয়া যাবে যেমন একটি পোস্ট এর হেডলাইন হলকিভাবে-ওয়েবসাইটে ভিজিটর সিস্টেমএই টি যদি আপনি সারাদেশে বুস্ট করেন, তাহলে গুগল এর মাধ্যমে বুস্ট করে নিলে গুগল এই লেখাটি লিং টি তাদের সার্চ অনুযায়ী প্রথম পেজে দিয়ে দিবে

 

. লেখা কপি করে দিলে কি ওয়েবসাইটে ভিজিটর পাওয়া যায়?

আমি প্রথমে গুগলে এডসেন্স পাওয়ার পর লেখা কপি করে পোস্ট দিছি তাতে সমস্যা হয়নাই তার মানে এই না যে, আমি একটি ফুল কন্টেন্ট কপি করে পোস্ট দিছি  আমি - টি ওয়েবসাইট এর লেখা একটু একটু করে নিয়ে নিজের মতো করে সাজিয়ে পোস্ট দিছি তাতে কোনো সমস্যা হয়নি বরং সেই পোস্ট গুগল ইনডেক্স হয়ে দ্রুত ফাস্ট পেজে স্নিপড আকারে চলে আসছে


 

. ফটো কপি করে দিলে কি এডসেন্স বা ভিজিটর কম হবে

উত্তর: জি হবে, একটি ফটো বিবিসি ১০০০ টাকা দিয়ে কিনে নিল এবং সেই ফটোটি যদি আপনি সেখান থেকে কপি করে নিয়ে কাজ করেন, তাহলে বিবিসির কাছে আপনি ধরা না খেয়ে গুগলে ধরা খাবেন  একটি ফটো তথ্য সহকারে গুগলে আছে , আর সেখান থেকে আপনি কপি করে পোস্ট দিলে সেই টা ভিজিটর খুবই কম হবে

. বেশি ভিজিটর একদিনে আসলে কি প্রবলেম হবে?

উত্তরঃ কখনই না, তবে আপনি যদি ভিপিএন বা ফ্রি কোন ভিজিটর বা ফেইক সিস্টেম করেন তাহলে আপনার ওয়েবসাইট ক্ষতিগ্রস্থ হবে ধরেন আপনি ওয়েবসাইট ভিজিটর পাওয়ার উপায় সার্চ দিলেন আর এভাবে দৈনিক হাজার এখানে ক্লিক পরে, তার মানে এই না যে, আপনার ওয়েবসাইট প্রবলেম হবে

. ফেসবুক কমেন্টের মাধ্যমে ভিজিটর আনার উপায়?

উত্তর: জি সমস্যা হবে আবার হবেনা আগেই বলছি আপনি যদি আপনার ফেসবুকের পেজের মাধ্যমে আপনার ডোমেইনটি ভেরিফাই না করেন, তবে ফেসবুক আপনাকে ব্লক করে দিবে তখন অনেক কস্টে আনব্লক করতে হবে তাই মনোযোগ দিয়ে ওয়েবসাইটে কাজ করতে হবে আর ভেরিফাই হলে আপনার পেজ থেকে সবসময় কমেন্ট করতে পারবেন এখন বড় ধরনের ওয়েবসাইট কোম্পনীগুলোও পোস্টে লিখে যে, বিস্তারিত কমেন্টে দেখুন এই হলো অবস্থা

৮. ডলার দিয়ে ভিজিটর নেওয়া যাবে কি?

উত্তর: জি ডলার দিয়ে ভিজিটর নেওয়া যাবে। তবে ভালো প্রোভাইডার দের থেকে নিতে হবে। আপনি জেনে শুনে নিবেন।

৯. মাইক্রোসাইট থেকে ভিজিটর নেওয়া?

উত্তর: কোনো ভাবেই এভাবে ভিজিটর নেওয়া যাবেনা। আপনি ভালো করে কন্টেন্ট লিখেন, গুগল ইনডেক্স হলে  সার্চ করে যত ভিসিটর আসবে সেগুলোই বেটার হবে।

১০. শেয়ার কমেন্ট বা লিং আদান প্রদানে ভিজিটর আনা যাবে কি?

উত্তর: আপনার সেই ভিজিটর গুলো সোসাল ভিজিটর হবে। এইখান থেকে ভিজিটর এনে লাভ নেই। শুধূ দেখানোর জন্য।

আমরা নতুনভাবে ওয়েবসাইট এর কাজ ধরছি। আমাদের সাথেই থাকুন।

 

 

2 মন্তব্যসমূহ

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

নবীনতর পূর্বতন