চট্টগ্রামে আন্জুমানের ঈদে মিলাদুন্নবীর (দ.) স্বাগত র‌্যালি শেষে সমাবেশে : নিজামুল আলম রাজু


 প্রেস বিজ্ঞপ্তি: 30-09-2022 খ্রিঃ

প্রিয়নবী (দ.)’র আগমনে আইয়্যামে জাহেলিয়াতের সমাপ্তি ঘটে
আন্জুমানে রহমানিয়া মইনীয়া মাইজভান্ডারীয়ার উদ্যোগে মাহে রবিউল আউয়ালকে স্বাগত জানিয়ে চট্টগ্রাম মহা নগরীতে র‌্যালি বের করা হয়। আজ ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২২, বা’দ জুমা’ র‌্যালিটি চট্টগ্রাম জমিয়তুল ফালাহ জাতীয় মসজিদ হইতে শুরু হয়ে নগরীর গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ করে জামাল খান প্রেস ক্লাবের সামনে সমাবেশের মাধ্যমে শেষ হয়। স্বাগত র‌্যালির উদ্বোধক ছিলেন চট্টগ্রাম মিলাদুন্নবী (দ.) উদ্যাপন কমিটির আহ্বায়ক আলহাজ্ব তৌহিদুল কাদের চৌধুরী।


 


প্রধান অতিথি ছিলেন মোস্তফা হাকিম গ্রুফের ব্যবস্থাপনা পরিচালক আল্হাজ্ব মো: নিজামুল আলম রাজু। তিনি বলেন, পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী (দ.) মাসের আগমন বিশ্ববাসীর জন্য আনন্দের। এই মাসেরই ১২ রবিউল আউয়াল সরকারে ক্বায়েনাত রহমাতুল্লিল আ’লামিন প্রিয়নবী (দ.) পৃথিবীতে শুভাগমন করেন। প্রিয়নবী (দ.)’র আগমনে আইয়্যামে জাহেলিয়াত তথা অন্ধকার যুগের সমাপ্তি ঘটে। অবিচার জুলুম নিপীড়ন, নির্যাতনের অবসান ঘটিয়ে প্রিয়নবী (দ.) কায়েম করেন সাম্য-সম্প্রীতি, ন্যায়-ইনসাফ। আজকে সারা বিশ্বে উপর্যুপোরী যুদ্ধের কারণে হাজার হাজার মানুষের রক্ত ঝরছে। নিজ দেশের সহায় সম্বল ছেড়ে লক্ষ লক্ষ মানুষ দেশ ত্যাগ করে মানবেতর জীবন যাপনে বাধ্য হচ্ছে। যুদ্ধ-সংঘাত কখনো সমাধান হতে পারে না। যুদ্ধের কারণে মানবতার করুন আর্তনাদই শুধু বাড়ে। তিনি আরো বলেন, পৃথিবীতে শান্তি প্রতিষ্ঠা করতে হলে রাসূলে পাক (দ.)’র আদর্শ অনুসরণের বিকল্প নেই।


সমাবেশে বিশেষ অতিথি ছিলেন, চট্টগ্রাম জেলা পিপি অ্যাডভোকেট ইফতেখার সাইমুল চৌধুরী, খাদেম আলহাজ্ব গাজী সালাহ উদ্দীন, আন্জুমান চট্টগ্রাম মহানগর সভাপতি খলিফা আলহাজ্ব বোরহান উদ্দিন, সাধারণ সম্পাদক ইউসুফ রেজা মিন্টু, দক্ষিণ জেলা সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব কাজী শহীদুল্লাহ, আন্জুমান কেন্দ্রীয় স্বেচ্ছাসেবক বিষয়ক সম্পাদক ওয়াহেদুল কবির চৌধুরী।


অনুষ্ঠানে প্রধান বক্তা ছিলেন হযরত সৈয়দ মইনুদ্দীন আহমদ মাইজভান্ডারী ট্রাস্টের মহাসচিব অ্যাডভোকেট কাজী মহসীন চৌধুরী। তিনি বলেন, জশ্নে ঈদে মিলাদুন্নবী (দ.) মুসলিমদের উত্তম ইবাদতপূর্ণ কৃষ্টি কালচারের অংশ। পবিত্র ১২ রবিউল আউয়াল ঈদে মিলাদুন্নবী (দ.)কে কেন্দ্র করে ঢাকা চট্টগ্রামসহ সারা দেশে উৎসব মুখর পরিবেশের সৃষ্টি হয়। দরবার, খানকাহ, মসজিদ, মাদ্রাসাসহ সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠান সমূহকে সাজানো হয় দৃষ্টি নন্দনভাবে। আজকে সারা দেশে ঈদে মিলাদুন্নবী (দ.) সরকারিভাবে সাড়ম্বরে উদযাপিত হচ্ছে। এর জন্য আমাদের প্রিয় মুর্শিদ কেবলা ইমামে আহলে সুন্নাত হযরত শাহ্সূফী সাইয়্যিদ মইনুদ্দীন আহমদ আল্-হাসানী ওয়াল হোসাইনী আল্-মাইজভা-ারী (ক.)কে অনেক ত্যাগ তিতিক্ষা ও কষ্ট স্বীকার করতে হয়েছে। রাজধানী ঢাকায় তিনিই পবিত্র ১২ রবিউল আউয়াল ঈদে মিলাদুন্নবী (দ.) প্রতিষ্ঠিত করেছেন। জীবদ্দশায় তিনি প্রতি বছরই রাজধানীতে জশনে জুলুসে ঈদে মিলাদুন্নবী (দ.) বর্ণাঢ্য আয়োজনে পালন করতেন।

 


 এরই ধারাবাহিকতায় প্রতি বছরের ন্যায় এবারও ৯ অক্টোবর রবিবার তাঁরই স্থলাভিষিক্ত আওলাদ হযরত শাহ্সূফী সাইয়্যিদ সাইফুদ্দীন আহমদ আল্-হাসানী ওয়াল হোসাইনী আল্-মাইজভান্ডারীর (মা.জি.আ.) নেতৃত্বে ঐতিহাসিক সোহরাওয়ার্দী উদ্যান হতে এশিয়ার সর্ব বৃহৎ জশ্নে জুলুস, রহমাতুল্লিল আ’লামিন কনফারেন্স ও আন্তর্জাতিক শান্তি মহাসমাবেশ অনুষ্ঠিত হবে।  


সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের শান্তি মহাসমাবেশে মাননীয় মন্ত্রী বর্গ, সংসদ সদস্যবৃন্দ, রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ, শিক্ষাবিদ, সাংবাদিক, আলেম-ওলামা, পীর মাশায়েখ, সুশিল সমাজের নেতৃবৃন্দসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশের ইসলামি স্কলারগণ অংশগ্রহণ করবেন। তিনি দেশবাসীকে এই আজিমুশ্শ্বান ঈদে মিলাদুন্নবী (দ.) উপলক্ষে রহমাতুল্লিল আ’লামিন কনফারেন্স ও শান্তি মহাসমাবেশে যোগদানের আহ্বান জানান।


অতিথি ও আলোচক ছিলেন আন্জুমান মহানগর সাংগঠনিক সম্পাদক মো: জসিম উদ্দিন ভূঁইয়া, দক্ষিণ সাংগঠনিক সম্পাদক মোজাহের আলম, মইনীয়া যুব ফোরাম চট্টগ্রাম জেলার সাবেক আহ্বায়ক আব্দুল ওয়াদুদ রিপন, মইনীয়া যুব ফোরাম চট্টগ্রাম মহানগর সভাপতি নোমান উদ্দিন রাজিব, সাধারণ সম্পাদক গিয়াস উদ্দিন রাজিব, উত্তর জেলা সভাপতি আকবর হোসেন রুবেল, সাধারণ সম্পাদক শহীদুল্লাহ, মিজানুর রহমান, ফেরদৌস আহমেদ, তানভীর আহমেদ, হাজী মোহাম্মদ হাসান, হাসান ইমাম সুজন, ইঞ্জিনিয়ার শহীদুল্লাহসহ পাভেল মাহমুদ রনি প্রমুখ।


ক্যাপশন: মাহে রবিউল আউয়ালকে স্বাগত জানিয়ে আন্জুমানে রহমানিয়া মইনীয়া মাইজভান্ডারীয়া ও মইনীয়া যুব ফোরামের উদ্যোগে নগরীতে র‌্যালি বের করা হয়।

Post a Comment

নবীনতর পূর্বতন